আমাদের কথা

স্বয়ংসিদ্ধা কথাটির আক্ষরিক অর্থ হল স্বয়ংসম্পূর্ণ। স্বয়ংসিদ্ধা হল ছাত্র-ছাত্রীদের স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়ে ওঠার একটি মঞ্চ। ছাত্র-ছাত্রীদের আত্মবিশ্বাস ও সামাজিক নেতৃত্বে আসার ক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে তাদের স্বয়ংসম্পূর্ণ করে তোলা যাতে তারা সমাজের সবরকম প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারে। জীবনের পথে এগোতে গেলে সতর্ক, সজাগ ও সচেতন হতে হবে। সিদ্ধান্ত নিতে হবে বিচার বিবেচনা করে। ছাত্র-ছাত্রীদের মনে এই ভাবনার বীজ বুনে দেওয়ার জন্যই স্বয়ংসিদ্ধা-র উদ্যোগ নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। এর প্রাথমিক উদ্দেশ্য মানবপাচার এবং বাল্যবিবাহ রুখতে ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্বে একটি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা। সুরক্ষিত সমাজ গঠনের লক্ষ্য নিয়ে ১২ থেকে ২১ বছর বয়সী স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা স্বয়ংসিদ্ধা দল গড়েছে। তাদের সহায়তায় আছে শিশু সুরক্ষা সমিতি।

উদ্দেশ্য

  • মানবপাচার ও বাল্যবিবাহ রোধ করা। মানব অধিকার, শিশু অধিকার ও লিঙ্গবৈষম্য সম্পর্কে জনসচেতনতা গড়ে তোলা।
  • মানবপাচার ও বাল্যবিবাহ রোধ করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের এক মঞ্চে একত্রিত করা।
  • নিরাপদ সমাজ গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে পুলিশ ও শিশুসুরক্ষা সমিতির সহায়তা নেওয়া।
  • ঝুঁকিপূর্ণ পরিবারগুলিকে শিক্ষা, কারিগরি ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ, জীবিকা, খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা।

স্বয়ংসিদ্ধা দল গঠন

বিদ্যালয়, কলেজ ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উৎসাহী ছাত্রছাত্রীরা স্বয়ংসিদ্দা দল গঠন করতে পারে। সব শ্রেনী বা বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে একটি পরিচালন দল গঠন করা যেতে পারে, তারাই মূল নেতৃত্বে থাকবেন। শিক্ষক-শিক্ষিকারা এই দলকে নানা কাজে পরামর্শ দান ও সাহায্য করবে। 

 

আমরা কী করতে পারি

  • গ্রামে কোথায় কী আছে তার একটি মানচিত্র তৈরি করা। এই মানচিত্র নিজের গ্রামের মানবসম্পদ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারনা তৈরি করবে।
  • গ্রামের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, লোকশিল্প ও  লোকশিল্পীদের তালিকা তৈরি করে তার সাংস্কৃতিক মানচিত্র তৈরি করা।
  • মানবপাচার ও বাল্যবিবাহে ঝুঁকিপূর্ণ এবং বিপন্ন ও নিরক্ষর পরিবারগুলির তালিকা তৈরি করে তাদের বিভিন্ন সরকারি যোজনার সঙ্গে যুক্ত করার জন্য সেই তালিকা শিশু সুরক্ষা সমিতির হাতে তুলে দেওয়া।
  • নিরক্ষর মানুষ ও স্কুলছুট বা একেবারেই স্কুলে যায় না এমন বাচ্চা আছে কি না তার একটি তালিকা তৈরি করা এবং স্কুল বা পঞ্চায়েতের হাতে তুলে দেওয়া।

স্বয়ংসিদ্ধা দলের কাজকর্ম

  • মানবপাচার ও বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে সপ্তাহে একদিন স্কুলের প্রার্থনার পর চর্চা করা।
  • বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিবস উদযাপনের মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।
  • পোস্টার আঁকা, দেওয়ালে ছবি আঁকা, দেওয়াল লিখন, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পথনাটক, মোমবাতি মিছিল, সাইকেল র‍্যালি, দৌড় প্রতিযোগিতা ইত্যাদি।
  • স্কুলছুট বা একেবারেই স্কুলে যায় না এমন বাচ্চা আছে কি না তার একটি তালিকা তৈরি করা এবং তা স্কুল বা পঞ্চায়েতের হাতে তুলে দেওয়া।
  • বাল্যবিবাহ হচ্ছে কি না তার খোঁজ রাখা এবং সময়মত খবর দেওয়া। গ্রামে অল্পবয়সী বিবাহিত মেয়েদের তালিকা প্রস্তুত করা।
  • মানবপাচার বিষয়ে জানতে শিশুবিকাশ ও সুরক্ষা নিয়ে যেসব স্বেছাসেবী সংগঠন বা NGO কাজ করে তাদের সঙ্গে স্বেছাসেবক হিসাবে যুক্ত হওয়া। 

রিপোর্ট করা

স্বয়ংসিদ্ধা দল দু’মাসে একবার তাদের কাজকর্মের রিপোর্ট দেবে। স্কুলের শিক্ষকদের সহযোগিতা নিয়ে মোবাইল বা  কম্পিউটারের মাধ্যমে এই রিপোর্ট তারা দিতে পারে। ব্লকস্তরের শিশুসুরক্ষা কমিটির সদস্যরা ব্লক অফিস থেকে এই রিপোর্ট দিতে পারেন। স্কুলগুলিতে একটি অভিযোগ-বাক্স থাকবে যেখানে ছাত্র-ছাত্রীরা অভিযোগ জানাতে পারে।

বিষয়

  • মানবিকতা, লিঙ্গ বৈষম্য ও শিশু অধিকার
  • জনগোষ্ঠীর পরিচয় গড়ে তুলতে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ 
  • বিভিন্ন যোজনার সুযোগ সুবিধা 
  • বাল্য বিবাহ ও শিশু শ্রমের কুফল
  • মানব পাচারের বিপদ 

গুরুত্বপূর্ণ দিবস

  • ১২ই জানুয়ারী : জাতীয় যুব দিবস

  • ৮ই মার্চ : আন্তর্জাতিক নারী দিবস

  • ৯ই জুন : শিশু সুরক্ষা দিবস

  • ১২ই জুন : বিশ্ব শিশুশ্রম বিরোধী দিবস

  • ৩০শে জুলাই: বিশ্ব মানব পাচার বিরোধী দিবস

  • ১৮ই আগস্ট : কন্যাশ্রী দিবস

  • ১১ই অক্টোবর: আন্তর্জাতিক শিশুকন্যা দিবস

  • ১৪ই নভেম্বর : শিশু দিবস

  • ২০শে নভেম্বর : শিশু অধিকার দিবস

ব্লকস্তরে স্বয়ংসিদ্ধা কমিটি

ব্লকস্তরে পরিচালন কমিটি- বিডিও-র নেতৃত্বে ব্লক স্তরে শিশুসুরক্ষা সমিতি মাসে দু’বার মিটিং করবে। অসুরক্ষিত বা ঝুঁকিপূর্ণ পরিবারের বাচ্চারা ঠিকমতো সুযোগসুবিধাগুলি পাচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখবে তারা। এই সমিতিকে সহযোগিতা করবে শিক্ষাবন্ধু, স্থানীয় প্যারালিগাল ভলান্টিয়ার্স, অণ্বেষা ক্লিনিকের কাউন্সিলর, পঞ্চায়েত বা ওয়ার্ড সদস্য/সদস্যা, পুলিশ।

 

DM / ADM-র নেতৃত্বে প্রতি তিন মাস অন্তর জেলাস্তরে মিটিং হবে। সেখানে অমীমাংসিত বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হবে।

সেরা নিরবাচিত দলগুলোকে বছরে একবার জেলা প্রশাসন ও পুলিশের তরফ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

জেলাভিত্তিক ড্যাসবোর্ড

জেলা

290

বিদ্যালয়

1

কলেজ

17191

ছাত্রী

9171

ছাত্র

219

কর্মপরিকল্পনা

28405

প্রচারের বিস্তৃতি

শিশুদের কার্য্যকলাপ

Please wait...

Subscribe to our newsletter

Want to be notified when our article is published? Enter your email address and name below to be the first to know.